মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ভৌগলিক পরিচিতি


View Larger Map

 

 

 

 

ভৌগলিক পরিচিতি

 

ভৌগোলিক পরিচয়: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভৌগলিক অবস্থান বাংলাদেশের পূর্ব সীমান্তে। আদিকাল থেকে নদ-নদী অধ্যুষিত ভাটীরাজ্য বলেই পরিচিত। স্রোতস্বিনী মেঘনা অববাহিকায় কালীদহ সায়রের পলি ও বালি সঞ্চিত নীচুভূমি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অধিকাংশ অঞ্চল। তবে উত্তর পূর্বাঞ্চলে কিছু উঁচু ভূমির নিদর্শণ রয়েছে। পাহাড়ি টিলার লালমাটি আদি স্থলভূমি ও জনপদের প্রমাণ বহন করে। তবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দক্ষিণ পূর্বাংশের অধিকাংশ এলাকা এখনো বর্ষার পানিতে প্লাবিত হয়ে থাকে। মেঘনা, তিতাস, সালদা, হাওড়া, বুড়ি ও লোহুর নদী বষার্কালে এখনো উপচে উঠে। প্রাচীন কাল থেকে সরাইল, হরষপুর, সুলতানপুর, কসবা ও নবীনগরের কিয়দংশ দ্বীপাঞ্চলের মতো বাস উপযোগী ছিল বলে ধারণা করা হয়। সময়ান্তরে ব্যাপক ভৌগোলিক বিবর্তন ঘটেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বহুলাংশ এখণ জন-বসতির উপযোগী সমতলভূমি। তবে আদিতে এ অঞ্চলের অবস্থা কেমন ছিল তার পুরো চিত্র এখন আর কল্পনা করা যায় না। ত্রিপুরার পার্বত্য ভূমির প্রান্তে মেঘনার বুকে জেগে উঠা চরের অবস্থানেই আদি সমতটরাজ্য গড়ে উঠেছিল বলে ধারণা করা হয়।

সীমানাব্রাহ্মণবাড়িয়ার পূর্বে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য। দক্ষিণে কুমিল্লা জেলা, পশ্চিমে নরসিংদী ও কিশোরগঞ্জ জেলা এবং  উত্তরে সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার অবস্থান।

অবস্থান:  ৯০°৩৯থেকে ৯১°২১পূর্ব দ্রাঘিমা এবং ২৩°২৯থেকে ২৪°১৬উত্তর অক্ষাংশ ।