মেনু নির্বাচন করুন

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
কোল্লাপাথর শহীদ সমাধিস্থল

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।

লক্ষীপুর শহীদ সমাধিস্থল

কসবা উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৩কিঃমিঃ উত্তর পূর্বে গোপীনাথপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে

কেল্লা শহীদ মাজার

  কাউতলী থেকে লোকাল সিএনজি যোগে যাওয়া যায় ।

উলচাপাড়া মসজিদ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
নাটঘর মন্দির নবীনগর থেকে রিক্সা করে যাওয়া যায় ।
বিদ্যাকুট সতীদাহ মন্দির নবীনগর থেকে রিক্সা করে যাওয়া যায় ।
কচুয়া মাজার নাসিরনগর থেকে নৌকা দিয়ে চাতলপাড় বাজার....পশ্চিম দিকে পায়ে হেটে কচুয়া মাজার, সরাইল থেকে নৌকা দিয়ে চাতলপাড়.....চাতলপাড় থেকে কচুয়া, ভৈরব থেকে নৌকা দিয়ে চাতলপাড়, লাখাই থেকে নৌকা দিয়ে চাতলপাড়
জয়কুমার জমিদার বাড়ী বুড়িশ্বর থেকে পায়ে হেটে মাত্র ১০ মিনিটে ঐ জমিদার বাড়ীতে যাওয়া যায়৤ এছাড়া বুড়িশ্বর ইউনিয়নের যেকোন জায়গা থেকে যানবাহন দ্বারা যাওয়া যায়৤ শুধু গংগানগর থেকে নৌ পথে যেতে হয়৤
হাতিরপুল

বাংলাদেশের যে কোন প্রান্ত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিশ্বরোড মোড় এসে সিএনজি যোগে সরাসরি আসা যায়। উপজেলা চত্বর থেকে সিএনজি যোগে যাওয়া যায়।

১০ আরিফাইল মসজিদ

বাংলাদেশের যে কোন প্রান্ত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিশ্বরোড মোড় এসে সিএনজি যোগে সরাসরি আসা যায় । উপজেলা চত্বর থেকে রিক্সা যোগে কিংবা পায়ে হেটেও যাওয়া যায় ।

১১ হাটখোলা মসজিদ বা আরফান নেছার মসজিদ বাংলাদেশের যে কোন প্রান্ত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিশ্বরোড মোড় এসে সিএনজি যোগে সরাসরি আসা যায় । উপজেলা চত্বর থেকে রিক্সা যোগে কিংবা পায়ে হেটেও যাওয়া যায় ।
১২ আয়েত উল্লাহ শাহ এর মাজার ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৩ শ্রী শ্রী কালাচাঁদ বাবাজীর মন্দির ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৪ টিঘর জামাল সাগর দীঘি ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৫ মুক্তিযোদ্ধে নিহত ৭১ জন শহীদের নামে নির্মিত স্মৃতিসৌধ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৬ ধর্মতীর্থ পটিয়া নদী পাড় (ধরন্তীঘাট) ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৭ কালিকচ্ছ নন্দীপাড়াস্থ দয়াময় আনন্দধাম। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
১৮ সলিমগঞ্জ কলেজ নবীনগর হতে সি এন জি বা মটর বাইক এবং বর্ষাকালে নৌকা যোগে ।
১৯ আব্দুর রহমান শাহের মাজার ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর থেকে সিএনজি নিয়ে যাওয়া যায় ।
২০ এমপি টিলা নবীনগর হতে লঞ্চে আসা যাওয়া করা যায় এবং নরসিংদী হতে লঞ্চে আসা যাওয়া করা যায় ।

সর্বমোট তথ্য: ৩৫



Share with :

Facebook Twitter